চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাটে এক গাছেই ৫০ মৌচাক

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

২৮ ডিসেম্বর, ২০২২ ০৭:০৭ অপরাহ্ন

চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাটে এক গাছেই ৫০ মৌচাক

একটি গাছের চারদিকে ঘিরে অনেক মানুষ। কেউ কেউ যেন ভযে আতঙ্কিত। যদি মৌমাছিরা ক্ষেপে যায় তবে রক্ষা নেই। কেউ কেউ আবার মৌচাক গণনা করে ব্যস্ত। কেউ কেউ আবার মৌচাকগুলির সৌন্দর্য নিয়ে কল্পনা জল্পনা করছে। ঘটনাটি জেলার ভোলাহাট উপজেলার সোনাজল এলাকার। চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাটে বিলের রাস্তার পাশেই বিরাট একটি পাইকড়ের গাছে প্রায় অর্ধাশতাধিক মৌচাক বেঁধেছে মৌমাছিরা। একসঙ্গে এতগুলো মৌচাক দেখার জন্য প্রতিদিনই এই গাছটির কাছে ভিড় করছেন উৎসুক জনতা। এমনই দৃশ্যের দেখা মেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলার কানসাট-ভোলাহাট সড়কের সোনাজল এলাকায়। এই পাইকড়ের গাছটি দেখভাল করেন গাছ সংলগ্ন ওই এলাকারই সেভেন স্টার নামের একটি ইট ভাটার মালিকও কর্মচারীরা।তাদের দাবি, প্রত্যেক বছরের ৫-৬ মাস এখানে মৌমাছিদের বিচরণ থাকে।

জানা যায়, বিলে শত শত হেক্টর জমিতে সরিষা আবাদ করছেন কৃষকরা।ওই সরিষার ক্ষেত থেকে মৌমাছিরা মধু আহরণ করে নিয়ে আসে। ফলে মৌমাছির গুনগুন ধ্বনিতে গাছতলা ও আশপাশ মুখরিত হয় সব সময়। রাস্তার পাশে পাইকোড়ের গাছটিতে রয়েছে ৫০টিরও বেশি মৌচাক। সাধারণত মৌমাছিরা ৫-৬ মাসের জন্য গাছটিতে বাসা বাঁধে। আবার যখন আম গাছে মুকুল ফোটার সময় হলে এলাকায় গিয়ে চাক গড়ে তোলে। সেভেন স্টার ইট ভাটার মালিক রাফিজুল হক ডাবলু বলেন,গত ১০ বছর ধরে আমরা দেখছি এ গাছটিতে মৌমাছিরা চাক তৈরি করে আসছে। বড়ই ফুল আসার সময় মৌমাছিরা এখানে আসে। তার আগে আমরা গাছের ডাল পালাগুলো পরিষ্কার করে থাকি।৩-৪ বার মধু সংগ্রহ করার পর মৌচাকগুলো আরও তিন-চার মাস থাকে। যখন আম গাছে মুকুল আসার সময় হয় তখন মৌমাছিরা চলে যায়।

স্থানীয় কৃষক শামসুল হক প্রতিবেদককে জানান, দীর্ঘদিন ধরেই গাছটিতে মৌচাক বসতে দেখি। গাছের প্রায় সব বড় ডালেই চাক বাঁধে মৌমাছিরা। একটি গাছে এতগুলো মৌচাক সাধারণত দেখা যায় না। অনেকেই এই গাছে অপরিপক্ক থাকা অবস্থায় মধু সংগ্রহ করতে আসলেও, ভাটা মালিকদের তদারকির কারনে তা পারে না। চাঁপাইনবাবগঞ্জের পরিবেশবাদী সংগঠন সেভ দ্যা নেচার এর প্রধান সমন্বয়ক রবিউল হাসান ডলার বলেন, এক গাছে এত মৌচাক সাধারণত খুব কমই দেখা যায়। পরিবেশের ভারসম্য রক্ষায় মৌমাছিদের ভূমিকা অপরিসীম।তাই মৌমাছিরা যাতে র্নিভিঘেœ মৌচাক তৈরি ও মধু সংগ্রহ করতে পারে তা নিশ্চিত করতে হবে।

ভোলাহাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুলতান আলী জানান, রাস্তার পাশে পাইকোড়ের গাছটিতে ৫০-৬০টি মৌচাক রয়েছে। যতটুক জেনেছি ১০-১৫ বছর ধরে এই গাছে মৌমাছিরা বাসা বাঁধে। এই দৃশ্য দেখতে খুবই ভালো লাগে। নিজ চোখে না দেখলে বলে বোঝাতে পারবো না দৃশ্যটি দেখতে কতো সুন্দর।কৃষকের উৎপাদিত বিভিন্ন ধরণের ফসল থেকে মধু সংগ্রহের জন্য মৌমাছিরা এখানে আসে।এতে ফসলের পরাগায়নে মৌমাছির ভূমিকা রয়েছে। চলতি শীত মৌসুমে উপজেলায় এবার মাঠে ৯০০ মৌ বক্স বসিয়েছে মৌয়ালরা।

 




ভিন্ন খবর - এর আরো খবর

বিল গেটসের নতুন প্রেমিকা কে এই পওলা হার্ড? 

বিল গেটসের নতুন প্রেমিকা কে এই পওলা হার্ড? 

২৮ ডিসেম্বর, ২০২২ ০৭:০৭ অপরাহ্ন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মহসিন হলের এ কি হাল?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মহসিন হলের এ কি হাল?

২৮ ডিসেম্বর, ২০২২ ০৭:০৭ অপরাহ্ন

ক্রাশ না ক্রাচ

ক্রাশ না ক্রাচ

২৮ ডিসেম্বর, ২০২২ ০৭:০৭ অপরাহ্ন

গৃহপরিচারিকা বেবি হালদার এখন নামি লেখিকা

গৃহপরিচারিকা বেবি হালদার এখন নামি লেখিকা

২৮ ডিসেম্বর, ২০২২ ০৭:০৭ অপরাহ্ন

বাঁচার আকুতি কত হৃদয়বিদারক !

বাঁচার আকুতি কত হৃদয়বিদারক !

২৮ ডিসেম্বর, ২০২২ ০৭:০৭ অপরাহ্ন

চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাটে এক গাছেই ৫০ মৌচাক

চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাটে এক গাছেই ৫০ মৌচাক

২৮ ডিসেম্বর, ২০২২ ০৭:০৭ অপরাহ্ন