- Advertisement -
হোম সারাদেশ খুলনা মোল্লাহাটে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় ২ হেফাজত কর্মী গ্রেপ্তার

মোল্লাহাটে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় ২ হেফাজত কর্মী গ্রেপ্তার

- Advertisement -

জাগো কণ্ঠ ডেস্ক: বাগেরহাটের মোল্লাহাটে হেফাজত নেতা মামুনুল হককে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে বের করা মিছিল থেকে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় দুই হেফাজত কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মোল্লাহাটের বিভিন্ন এলাকায় সোমবার রাতে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করা হয় রাফিন সরদার ও ত্রাণ মোল্লা নামের দুইজনকে। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী গোলাম কবির এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় সোমবার রাতে ২৬ জনের নাম উল্লেখ করে, অজ্ঞাতপরিচয় আরও শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করে মামলা করেছেন উপপরিদর্শক (এসআই) শাহিনুর রহমান গোলদার। প্রধান আসামি করা হয়েছে হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের আত্মীয় আব্দুল্লাহ খন্দকারকে।

ওসি বলেন, হামলার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে রাতেই উপজেলার উদয়পুর আড়িয়াকান্দি গ্রামের দুই হেফাজত কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

মোল্লাহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মোড়ে সোমবার বেলা ১১টার দিকে মিছিল বের করেন হেফাজতের অনুসারীরা।

ওসি কাজী গোলাম কবির বলেন, মামুনুল হককে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে উপজেলার বিভিন্ন মাদ্রাসার শিক্ষক ও ছাত্ররা মিছিল নিয়ে হাসপাতাল মোড়ে জড়ো হতে থাকেন।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের জড়ো হওয়ার কারণ জানতে চাইলে তারা পুলিশের ওপর হামলা করেন। এতে তিনিসহ সাত পুলিশ সদস্য আহত হন।

তিনি ছাড়া আহত অন্য পুলিশ সদস্যরা হলেন এসআই ঠাকুর দাস, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) বাহারুল, লিয়াকত, কনস্টেবল সোহাগ মিয়া, নাজমুল ফকির ও ডিএসবির কনস্টেবল শহিদুল ইসলাম। তারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন।

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর সেক্রেটারি মামুনুল হককে সোমবার ভাঙচুরের মামলায় সাত দিনের রিমান্ডে দিয়েছে আদালত। পরে সেখান থেকে তাকে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ে নেয়া হয়।

এর আগে রোববার রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসা থেকে মামুনুলকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তারের পর মামুনুলকে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনারের (ডিসি) কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখান থেকে তাকে নেয়া হয় রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপির গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কার্যালয়ে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরের সময় সাম্প্রতিক সহিংসতা ও রিসোর্ট-কাণ্ডে রাজধানীর পল্টন থানা ও নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানায় দুটি মামলা হয় মামুনুলের বিরুদ্ধে। এ ছাড়া ২০১৩ সালের শাপলা চত্বর তাণ্ডবের ঘটনাতেও তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা আছে।

- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -

আরও সংবাদ

- Advertisement -