নিত্যপণ্যের বাজারে দাম বৃদ্ধির মিছিল

আলী আকবর, নিজস্ব প্রতিবেদক

২৭ মে, ২০২২ ১০:২৬ অপরাহ্ন

নিত্যপণ্যের বাজারে দাম বৃদ্ধির মিছিল

রাজধানীর বাজারগুলোতে চাল ও আটার দাম বেড়েছে। আর, এ মূল্যবৃদ্ধির ফলে সাধারণ জনগণ বিপাকে পড়েছেন। শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ানবাজার, মুগদা, যাত্রাবাড়ী, মিরপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, রাজধানীর বাজারে সব ধরনের চালের দাম তিন থেকে আট টাকা বেড়েছে। খুচরা বাজারে মোটা চাল বিক্রি হচ্ছে ৫২ থেকে ৫৫ টাকা, মিনিকেট ৭০ টাকা, কাটারি ৭৫ টাকা এবং নাজিরশাইল ৭৫ টাকা। এ ছাড়া আটা-ময়দা কেজিতে প্রায় ৮-১০ টাকা বেড়ে খোলা আটা ৫০ টাকা, ১ কেজির আটার প্যাকেট ৫৫ টাকা (দুই কেজির) প্যাকেট আটা ৯৬ টাকা এবং প্যাকেট ময়দা ৬৩ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

অপদিকে, রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে সবজির বাজার স্থিতিশীল দেখা গেছে। মিরপুর ৬ নম্বরে গিয়ে দেখা গেছে—বরবটি বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১০০ টাকা। কাঁকরোল কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকায়। বেগুন করলার কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৮০ টাকা; কাঁচা পেঁপের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকা। কাঁচা কলার হালি বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৫০ টাকায়। টমেটোর কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা; পটলের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা; ঢ্যাঁড়সের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা এবং ঝিঙে ও চিচিঙ্গার কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা দরে।
এ ছাড়া বাজারে দেখা গেছে, গরুর মাংস ৭০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। দেশি মুরগি কেজি ৫৭০ থেকে ৫৮০ টাকা, সোনালি ৩০০ টাকা এবং ব্রয়লার ১৫০ থেকে ১৫৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

মাছের বাজারে দেখা গেছে, রুই মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৪৫০ টাকা দরে। এক কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ১৩০০ থেকে ১৬০০ টাকায় এবং ৫০০-৬০০ গ্রামের ইলিশের কেজি ৫০০ থেকে ৬০০ টাকায়। তেলাপিয়া, পাঙাস মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৬০ থেকে ১৮০ টাকা দরে। শিং মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৪৬০ টাকা; শোল মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা; কৈ মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ২৩০ টাকা এবং পাবদা মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৪৫০ টাকা দরে।




স্পেশাল রিপোর্ট - এর আরো খবর

দুই মেয়েকে নিয়ে এক মায়ের সংগ্রাম

দুই মেয়েকে নিয়ে এক মায়ের সংগ্রাম

২৭ মে, ২০২২ ১০:২৬ অপরাহ্ন